যুক্তরাজ্যের ১০০ প্রতিষ্ঠানে সপ্তাহে অফিস চার দিন, কমছে না বেতন

যুক্তরাজ্যের ১০০ প্রতিষ্ঠানে সপ্তাহে অফিস চার দিন, কমছে না বেতন

 

যুক্তরাজ্যের ১০০টি প্রতিষ্ঠানে সপ্তাহে পাঁচ দিনের পরিবর্তে চার দিনের কাজ চালু হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানগুলোতে এখন সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিনের পরিবর্তে তিন দিন। সম্প্রতি এই ১০০ প্রতিষ্ঠান এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সপ্তাহে কাজের দিন কমলেও বেতন কমবে না কর্মীদের।

হঠাৎই ব্রিটেনের সংস্থাগুলো সপ্তাহে চার দিন কাজের নিয়ম চালু করেনি। এ নিয়ে নানা গবেষণা হয়েছিল। অনেক কর্মী ও বিশেষজ্ঞের মত হচ্ছে, সপ্তাহে এক দিন বেশি ছুটি পেলে মন তরতাজা থাকে বেশি। সপ্তাহে চার দিন কাজ করলে কর্মীদের মধ্যে কাজের আগ্রহ বাড়বে বলেও মনে করেন মালিকপক্ষ। এ সিদ্ধান্তের ফলে ১০০ সংস্থার ২ হাজার ৬০০ কর্মী এখন সপ্তাহে তিন দিন ছুটি পাবেন।

 

এ সময়ে আমরা কর্মীদের মধ্য সুস্থ থাকার হার বাড়তে দেখেছি। একই সঙ্গে গ্রাহক পরিষেবা এবং গ্রাহকদের সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে আরও এগিয়েছি আমরা

 

চার দিনের কাজ চালু করা নিয়ে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা বলছেন, পাঁচ দিন কাজ পুরোনো অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় চালু হয়েছিল। এখন এটা অনেকটাই সেকেলে ধারণা। চার দিনের কাজ কর্মীদের কর্মদক্ষতা আরও বাড়াবে বলে মনে করছেন তাঁরা। কর্মীরা আরও উন্নতমানের কাজ করতে সমর্থ হবেন বলেও মনে করছে সংস্থাগুলো।

 

যুক্তরাজ্যের ১০০ প্রতিষ্ঠানে সপ্তাহে অফিস চার দিন, কমছে না বেতন

 

কর্মীদের ভাষ্য, সপ্তাহে পাঁচ দিন কাজ করার কারণে কাজের প্রতি আগ্রহের ঘাটতি তৈরি হওয়ার সুযোগ থাকে। কাজ ঠিকভাবে সম্পন্ন করতে পারতেন না। মানসিক চাপ অনুভব করতেন। সপ্তাহে চার দিন কাজের সময় নির্ধারণ করার সিদ্ধান্তকে তাঁরা সাধুবাদ জানিয়েছন। কর্মীরা বলছেন, এতে তাঁরা কাজ আরও সুন্দরভাবে কাজ করতে পারবেন কোনো চাপ ছাড়াই।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান চার দিনের কাজের সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছে। সংবাদ প্রতিষ্ঠানটির মতে, এ পদ্ধতিতে কর্মীদের দক্ষতা বাড়বে।

সপ্তাহে চার দিন কাজের নিয়ম চালু করছে যুক্তরাজ্যের দুটি অন্যতম বড় প্রতিষ্ঠান। অ্যাটম ব্যাংক এবং গ্লোবাল মার্কেটিং সংস্থা অ্যাউইন। দুটি প্রতিষ্ঠানে ৪৫০ জন করে কর্মী আছেন। অ্যাউইনের প্রধান নির্বাহী অ্যাডাম রস বলেছেন, সপ্তাহে চার দিন কাজের নিয়ম চালু করা কোম্পানির ইতিহাসে অন্যতম সেরা উদ্যোগী সিদ্ধান্ত।

দেড় বছর পরীক্ষামূলকভাবে অ্যাউইনে চার দিন কাজ হয়েছে। এরপর অ্যাডাম রস বলছেন, ‘এ সময়ে আমরা কর্মীদের মধ্য সুস্থ থাকার হার বাড়তে দেখেছি। একই সঙ্গে আমাদের গ্রাহক পরিষেবা এবং গ্রাহকদের সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে আরও এগিয়েছি আমরা।’

এই ১০০ সংস্থা সপ্তাহে চার দিনের কাজের নিয়ম হঠাৎ চালু করেনি। এ নিয়ে হয়েছে গবেষণা। কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়, বোস্টন কলেজের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো এ নিয়ে গবেষণা করেছে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রকল্পের সঙ্গে জড়িত প্রায় ৭০টি সংস্থার সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলা হয়েছে। তারাই চার দিনের কাজের বিষয়টি চালুর প্রস্তাব করেছে। ওই সব প্রতিষ্ঠানের সমীক্ষায় উঠে এসেছে ৮৮ শতাংশ সংস্থা চার দিনের কাজের ব্যাপারে সহমত। এ নিয়ম পরীক্ষামূলকভাবে চালু থাকা প্রতিষ্ঠানগুলো বলছে, এতে কর্মীরা আরও কর্মদক্ষ হয়ে উঠছেন। এরপরই প্রযুক্তি, ইভেন্ট ও মার্কেটিংয়ের কাজ করা বিভিন্ন সংস্থা সপ্তাহে চার দিনের কাজের নিয়ম চালু করে ফেলে। তথ্যসূত্র: দ্য গার্ডিয়ান ও এনডিটিভি

By serajob

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *